অবশেষে শুরু হচ্ছে ক্ষতিগ্রস্ত কাপ্তাই সড়ক সংস্কার

কাল থেকে দুই ধাপে কাজ করবে ওয়াসা, সময় লাগবে ৩ মাস

আজাদী প্রতিবেদন

শুক্রবার , ১২ জানুয়ারি, ২০১৮ at ৬:১২ পূর্বাহ্ণ
332

অবশেষে চট্টগ্রাম ওয়াসা কর্তৃপক্ষ দুইধাপে কাপ্তাই রাস্তার মাথা থেকে রাঙ্গুনিয়ার পোমরা পর্যন্ত ২৩ কিলোমিটার ক্ষতিগ্রস্ত সড়কের কাজ আগামীকাল শনিবার থেকে শুরু করতে যাচ্ছে। প্রথম পর্যায়ে রাঙ্গুনিয়ার পোমরা গোডাউন এলাকা (যেখান থেকে কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্প২ এর কাজ শুরু হয়েছে) থেকে মদুনাঘাট পর্যন্ত ১৮ কিলোমিটারের কাজ শুরু হচ্ছে। জাপানের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কোবুতা কন্সট্রাকশন করপোরেশন সড়ক নির্মাণ কাজের তদারকি করবে বলে ওয়াসা থেকে জানানো হয়েছে।

এদিকে কাপ্তাই রাস্তার মাথা থেকে মদুনাঘাট পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার সড়কের কার্পেটিংয়ের কাজ শুরু হচ্ছে ১৪ জানুয়ারি থেকে।

আগামী ৩ মাসের মধ্যে এই সড়কের পুরো কাজ শেষ হবে বলে জানান চট্টগ্রাম ওয়াসার নির্বাহী প্রকৌশলী ও মদুনাঘাট পানি সরবরাহ প্রকল্পের উপ প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ আরিফুল ইসলাম এবং কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্পের উপ প্রকল্প পরিচালক ও নির্বাহী প্রকৌশলী মাকসুদ আলম।

চট্টগ্রাম ওয়াসার বাস্তবায়নাধীন ‘কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্পের’ দ্বিতীয় প্রকল্পের কাজ চলছে। প্রকল্পের কাজের অংশ হিসেবে রাঙ্গুনিয়াস্থ গোডাউন অংশ হতে কাপ্তাই রাস্তার মাথা পর্যন্ত ভূগর্ভস্থ ট্রান্সমিশন লাইন স্থাপনের কাজ চলছে। পাইপ লাইনের কাজ করতে গিয়ে রাস্তার মাঝখানে বড় বড় গর্ত করতে হচ্ছে ট্রান্সমিশন লাইনের কাজের জন্য। এতে করে এই সড়কের যানবাহন চলাচলের ক্ষেত্রে দুর্ভোগ বেড়েছে। রাঙ্গুনিয়া ও রাউজান এলাকাবাসী অনেকবার মানববন্ধনসহ প্রতিবাদ সমাবেশ ও সংবাদ সম্মেলনও করেছে এই সড়কের কাজ তাড়াতাড়ি শেষ করার জন্য। স্থানীয় এলাকাবাসীর বিক্ষোভের কারণে শেষ পর্যন্ত ওয়াসা কর্তৃপক্ষ রাঙ্গুনিয়াস্থ গোডাউন অংশ হতে কাপ্তাই রাস্তার মাথা পর্যন্ত পুরোপুরি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে।

এই ব্যাপারে চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী একেএম ফজলুল্লাহ আজাদীকে জানান, আমরা কাজ শুরু করছি আস্তে আস্তে। মদুনাঘাট থেকে কাপ্তাই রাস্তার মাথা পর্যন্ত কার্পেটিংয়ের কাজ আগামী এক মাসের মধ্যে শেষ হবে। আমি বারবার বলছি পাইপ লাইনের জন্য রাস্তা কেটেছি অর্ধেক, কিন্তু আমি পুরো সড়ক করে দেবো। কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্প২ চট্টগ্রামের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রকল্প। এটা প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রকল্প। তারপরও এলাকাবাসী সেটা বুঝতে চান না। তারা বারবার চাপ দিচ্ছেন। আমরা যে অংশটায় গর্ত করেছি তার পাশে যানবাহন চলাচলের ব্যবস্থা করেছি। কাজ চলাকালীন সময়ে সার্বক্ষণিক ট্রাফিক কন্ট্রোল করা হচ্ছে। এদিকে মদুনাঘাট পানি সরবরাহ প্রকল্পের উপ প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ আরিফুল ইসলাম আজাদীকে জানান, কাপ্তাই রাস্তার মাথা থেকে মদুনাঘাট পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার সড়কের কার্পেটিং কাজ শুরু হবে রোববার থেকে। এই সড়কের স্থায়ী মেরামতের কাজ আমরা শুরু করেছি তিন মাস আগে। এখন শুধু কার্পেটিয়ের কাজ শুরু করবো।

এদিকে কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্পের উপ প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী মাকসুদ আলম আজাদীকে জানান, রাঙ্গুনিয়ার পোমরা থেকে মদুনাঘাট পর্যন্ত ১৮ কিলোমিটারের কাজ আমরা শনিবার থেকে শুরু করবো। এখন রাস্তার দুই পাশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ড্রেনের কাজ করছি। আগামী এপ্রিলের মধ্যে পুরো কাজ শেষ হবে। তিনি বলেন আমাদের কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্প২ এর মেয়াদ ছিল ২০২২ সাল পর্যন্ত। কিন্তু আমরা ২০২০ সালের মধ্যে পুরো প্রকল্পের কাজ শেষ করবো। তখন নগরবাসী এই প্রকল্প থেকে পানি পাবে। জাপানের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কোবুতা কন্সট্রাকশন করপোরেশন সড়ক নির্মাণ কাজের তদারকি করবে। পুরো প্রকল্পের সাথে সড়ক সংস্কারের কাজও রয়েছে। প্রথমে যে অংশে আমরা গর্ত করেছি সেই অংশ ধরে কাজ করে যাবো। পরবর্তীতে অপর অংশের কাজ ধরবো।

x