অহিংস চেতনায় মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে হবে

রাঙ্গুনিয়ায় বৌদ্ধ জ্ঞাতি সম্মেলনে বক্তারা

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

রবিবার , ২৬ নভেম্বর, ২০১৭ at ৬:০৩ পূর্বাহ্ণ
14

ধর্ম মানুষকে কল্যাণকর করে। ধর্মকে ধারণ করতে হলে জীবনকে পরিত্যাগ করতে হবে। ধর্মকে উপলব্ধি করতে হলে ভাল মানুষ হতে হবে। অহিংস চেতনায় মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। ধর্ম মানুষের অন্তরে কখন পৌছুবে তা জানতে হবে। ধর্মকে ধারণ করতে হলে প্রকৃত ধর্ম উপলব্ধি করতে হবে। বৌদ্ধ ধর্মে সমস্ত জীবের কল্যাণের কথা বলা হয়েছে। আমরা মানবজাতি যে যেই ধর্মের অনুসারী হই না কেন, প্রকৃতপক্ষে সকল ধর্মের মর্মবাণী হচ্ছে শান্তি, সৌহার্দ্য, সাম্য ও মৈত্রী। হিংসাবিদ্বেষ পরিহার করে মানুষের সেবা করা। শুক্রবার বিকালে রাঙ্গুনিয়ার মরিয়মনগর চৌমুহনী সংলগ্ন গুমাই বিল চত্বরে বুদ্ধ মহাধাতু চৈত্যর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে সর্দ্ধদেশনা ও বৌদ্ধ জ্ঞাতি সম্মেলনে বৌদ্ধ সাধক (ধুতাঙ্গ) শীলানন্দ স্থবির তাঁর বক্তব্যে একথা বলেন। রাঙ্গুনিয়া কেন্দ্রীয় সৈয়দবাড়ি ধর্ম চক্র বিহারের অধ্যক্ষ বিমল জ্যোতি মহাস্থবিরের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আলী শাহ, চট্টগ্রাম উত্তরজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, রাজানগর শাক্যমুনি রাজ বিহারের অধ্যক্ষ ইন্দ্রচারা মহাস্থবির, ইছামতি ধাতুচৈত্য বিহারের অধ্যকক্ষ সুমঙ্গল মহাস্থবির, পোমরা জ্ঞানাঙ্কুর বিহারের অধ্য শাসনপ্রিয় মহাস্থবির, নজরের টিলা ধাতুরত্ন বিহারের অধ্য সত্যানন্দ ভিক্ষু, উদযাপন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী স্বজন কুমার তালুকদার, সভাপতি পূর্ণ চন্দ্র মুৎসুদ্দী প্রমুখ।

সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জয় বড়ুয়া, প্রচার সম্পাদক সুব্রত বড়ুয়া প্রমুখ।

x