ইডিইউর স্থায়ী ক্যাম্পাস উচ্চশিক্ষার পরিবেশ বদলে দেবে

ইউজিসি চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান

শনিবার , ২৭ জানুয়ারি, ২০১৮ at ১১:০০ অপরাহ্ণ
127

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির (ইডিইউর) স্থায়ী ক্যাম্পাস আগামী দিনে উচ্চশিক্ষার পরিবেশ বদলে দেবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান।
তিনি বলেছেন, ইডিইউর দৃষ্টিনন্দন স্থায়ী ক্যাম্পাস শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের প্রত্যাশা পূরণে শতভাগ সফল হবে বলে আমি মনে করি। গুণগতমান বজায় রেখে গবেষণা ও জ্ঞান সৃষ্টির জন্য এই বিশ্ববিদ্যালয় অতীতের মতো ভবিষ্যৎ দিনগুলিতেও সমানভাবে কাজ করে যাবে।
তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ভবনের ভিতর আবদ্ধ কোনো প্রতিষ্ঠান নয়। এখানে হাঁটতে, বসতে শেখার অনেক কিছু ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। প্রকৃতির নিবিড় পরিবেশে গড়ে ওঠা ইডিইউ’র গ্রিন ক্যাম্পাস পাঠ্য বইয়ের বাইরে নিত্যনতুন জ্ঞান সৃষ্টি করবে-এটাই সবার প্রত্যাশা।
আজ শনিবার (২৭ জানুয়ারি, ২০১৮) দুপুরে নগরীর খুলশীর পূর্ব নাসিরাবাদের নোমান সোসাইটির ইডিইউ’র স্থায়ী ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত ২০১৮ সালের স্প্রিং সেমিস্টারের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রফেসর আবদুল মান্নান। নতুন ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থী ছাড়াও এতে তাদের অভিভাবক, শিক্ষক ও চট্টগ্রামের বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে ইউজিসি চেয়ারম্যান কর্মমুখী শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, পাশ করার পর পাঠ্যবইয়ের পড়া কোনো কাজে আসে না। চালক ছাড়া যেখানে গাড়ি চলতে শুরু করেছে সেখানে এসব গতানুগতিক পড়া নিছক ধারণা ছাড়া অন্য কিছু নয়।
এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে ইডিইউ’র শিক্ষার্থীদের নেতৃত্ব দিতে হবে যেখানে তরুণ শিক্ষার্থীরা তাদের মেধা দিয়ে বিশ্বকে নতুনভাবে পরিচালিত করবে।
প্রফেসর মান্নান বলেন, ইউজিসি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুণগত মান নিশ্চিত করতে চাইছে। আমরা ওয়েবসাইটে কতিপয় ইউনিভার্সিটির কথা উল্লেখ করে শিক্ষা গ্রহণে সবাইকে সর্তক হতে বলেছি। তাই বলে আবার সবার আতংকিত হওয়ার কিছু নেই।
তিনি বলেন, প্রযুক্তির ছোঁয়ায় নিজেকে সমৃদ্ধ হতে হবে। পৃথিবী এখন সেদিকে যাচ্ছে। ইডিইউ’র শিক্ষার্থীরা উদার, সহনশীল ও দেশপ্রেমিক হয়ে পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশকে তুলে ধরবে বলে এ সময় আশাবাদ ব্যক্ত করেন আবদুল মান্নান।
সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য প্রফেসর মুহাম্মদ সিকান্দার খান বলেন, প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমানের একক পরিকল্পনায় ইডিইউ’র স্থায়ী ক্যাম্পাস গড়ে উঠেছে। তার দৃঢ়তায় স্বল্প সময়ের মধ্যে এ ক্যাম্পাস গড়ে তোলা সম্ভব হয়েছে। আন্তর্জাতিকমানের শিক্ষা ছড়িয়ে দিতে ইডিইউ বদ্ধপরিকর বলেও বক্তব্যে উল্লেখ করেন উপাচার্য।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য দেন ট্রেজারার প্রফেসর সামস উদ দোহা, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার সজল বড়ুয়া, তিন অ্যাসোসিয়েট ডিন ড. মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, ড. মোহাম্মদ রকিবুল কবীর ও মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম চৌধুরী। পুরো অনুষ্ঠানটি উপস্থাপন করেন তাসমিন চৌধুরী বহ্নি।
এর আগে ইউজিসি চেয়ারম্যানের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন উপাচার্য। পরে তিনি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এমফি থিয়েটারে বসে কেক কাটেন ও ছবি তোলেন। ক্যাম্পাসের ফটক দিয়ে ঢুকেই ইডিইউ’র একাডেমিক কার্যক্রম ঘুরে দেখেন প্রফেসর মান্নান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

x