এমএইচ৩৭০ খুঁজতে গিয়ে সাগরতলে মিলল ঊনিশ শতকের জাহাজ

শনিবার , ৫ মে, ২০১৮ at ৬:২৯ পূর্বাহ্ণ
82

চার বছর আগে নিখোঁজ মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট এমএইচ৩৭০ নিয়ে অনুসন্ধান অভিযান এখন পর্যন্ত সফলতার মুখ না দেখলেও অস্ট্রেলিয়ায় সাগরের তলদেশে তল্লাশিতে পাওয়া গেছে ঊনিশ শতকের ডুবে যাওয়া দুটি জাহাজের সম্ভাব্য সন্ধানসূত্র।

ওই উড়োজাহাজের সন্ধানে গিয়ে ২০১৫ সালে মালয়েশিয়া ও চীনের যৌথ অভিযানে অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চল উপকূল থেকে দুই হাজার তিনশ কিলোমিটার দূরে এই জাহাজ দুটির খোঁজ পাওয়া গেলেও তা এতদিন প্রকাশ পায়নি। বৃহস্পতিবার সমুদ্র বিশেষজ্ঞদের একটি দল অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলে পাওয়া দুটি জাহাজ শনাক্ত করার সম্ভাব্য আলামতগুলোর একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করেছে। জাহাজের ধ্বংসাবশেষ শনাক্তে অস্ট্রেলিয়ার সমুদ্র গবেষকরা সোনার প্রযুক্তিতে সমুদ্রতলে নেওয়া জাহাজের ছবি এবং জাহাজ চলাচলের পুরনো তথ্য ব্যবহার করেছেন বলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে উনিশ শতকে হারিয়ে যাওয়া দুটি কয়লাবহনকারী জাহাজের ‘লাপাত্তা’ হওয়ার রহস্য উন্মোচনের কাছাকাছি পৌঁছানো গেছে বলে গবেষকরা দাবি করছেন। ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া মিউজিয়ামের মেরিটাইম আর্কিওলজির কিউরেটর রোস অ্যান্ডারসন জানান, ১৮৯৪ সালে হারিয়ে যাওয়া দ্য ওয়েস্ট রিজ, ১৮৯৪ সালের কোরিংগা ও ১৮৯৭ সালের লেক অন্টারিও জাহাজগুলোর যে কোনো দুটি হতে পারে অনুসন্ধানে পাওয়া এই জাহাজগুলো। সাগরের নীচে ৩ হাজার সাতশ মিটারেরও বেশি গভীরে পাওয়া লোহার জাহাজটির সাথে ২৮ জন নাবিক নিয়ে যুক্তরাজ্য থেকে ভারত যাওয়ার পথে ‘হারিয়ে’ যাওয়া দ্য ওয়েস্ট রিজের সবচেয়ে বেশি মিল দেখতে পান তিনি। কাঠের তৈরি অপর জাহাজটি ১৮৭৭ সালে ১০ জন নাবিক নিয়ে স্কটল্যান্ড থেকে অস্ট্র্রেলিয়া যাওয়ার পথে অদৃশ্য হয়ে যাওয়া ডব্লিউ গর্ডন অথবা ১৮৮২ সালে ওয়েলস থেকে ইন্দোনেশিয়ার পথে হারিয়ে যাওয়া ম্যাগডালা হতে পারে বলে তিনি মনে করেন। অ্যান্ডারসন বলেন, একহাজার ও দেড় হাজার টন ওজনের জাহাজ দুটি সমুদ্রের চার কিলোমিটারেরও বেশি গভীরে এর তলদেশে প্রায় অক্ষত অবস্থায় পাওয়া গেছে। তবে অসম্পূর্ণ পুরনো তথ্যের কারণে জাহাজগুলোকে সঠিক ভাবে শনাক্ত করা সম্ভব হচ্ছে না বলেও জানান তিনি। ২০১৪ সালের ৮ মার্চ ২৩৯ জন যাত্রী নিয়ে মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট এমএইচ৩৭০ কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিংয়ের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার পর রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যায়। ওই সময় মালয়েশিয়া জানায়, বিমানটি সচেতনভাবে পথ ঘুরিয়ে অজ্ঞাত গন্তব্যে রওনা করেছিল। ২০১৫ সালের জুলাইয়ে ভারত মহাসাগরের নির্দিষ্ট অনুসন্ধান এলাকার দক্ষিণপ্রান্তে অনুসন্ধানস্থল থেকে চার হাজার কিলোমিটার দূরে রিইউনিয়ন দ্বীপের সৈকতে বিমানের ডানার একটি অংশ পাওয়া গিয়েছিল। একহাজার ৪৬ দিনের নিষ্ফল অভিযানের পর ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে এমএইচ৩৭০ খোঁজের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

x