ছাত্রদল-যুবদলের মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ, আহত ১৫

আজাদী প্রতিবেদন

সোমবার , ৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ at ৫:৫৮ পূর্বাহ্ণ
25

নগরীর রেল স্টেশনে ছাত্রদলযুবদলের মিছিলে লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এতে কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন। গতকাল বিকেল আড়াইটার দিকে এ লাঠিচার্জের ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে ট্রেনযোগে চট্টগ্রামে আসেন নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন। বিকেল তিনটায় তিনি স্টেশনে নামার কথা ছিল। এদিকে তাকে বরণ করে নেয়ার জন্য ছাত্রদলযুবদলের কর্মীরা আগে থেকে অবস্থান নেয় স্টেশনে। একপর্যায়ে তারা মিছিল করতে চাইলে বাধা দেয় পুলিশ। এসময় লাঠিচার্জও করা হয় বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। এপ্রসঙ্গে ডা. শাহাদাত বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিন নেয়ার পর চট্টগ্রামবাসী ও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির উদ্যোগে পুরাতন রেলস্টেশনে সংবর্ধনা দিতে চাইলে আমি সংবর্ধনা নেব না বলে জানিয়ে দিয়েছিলাম। ফলে পূর্ব নির্ধারিত সংবর্ধনা বাতিল করে দলীয় কার্যালয়ে বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি দিয়েছিলাম, কিন্তু নেতাকর্মীরা নতুন রেলস্টশন চত্বরে বেলা আড়াইটার সময় আসলে তাদের উপর কোন কারণ ছাড়াই পুলিশ লাঠিচার্জ করে।

এদিকে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদের আয়োজিত সমাবেশ ছিল বিশৃঙ্খলায় ভরা। তবে কোন হাতাহাতির ঘটনা ঘটেনি। অবশ্য সমাবেশ চলাকালেই শেহ্মাগান দেয়ায় শুনা যাচ্ছিল না বক্তব্য। মঞ্চ থেকে সিনিয়র নেতারা বার বার বলার পরেও তাতে যেন কর্ণপাত করছিল না কর্মীরা। সমাবেশে আসা কর্মীদের অনেকেই বসার চেয়ারে দাঁড়িয়ে যান। এতে পিছনের সারিতে বসা কর্মীরা বক্তাদের দেখতে না পেয়ে হৈ চৈ করতে থাকেন। এমন পরিস্থিতিতে নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্করও বসার চেয়ারে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিলেন।

x