জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর ফিলিস্তিন গ্রাসের চক্রান্ত

বিবৃতিতে জুনাইদ বাবুনগরী

বৃহস্পতিবার , ১৭ মে, ২০১৮ at ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
23

জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর ও গাজায় ইসরাইলি গণহত্যার নিন্দা জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা হাফেজ জুনায়েদ বাবুনগরী। গতকাল গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ইসরাইল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ৭০তম বার্ষিকীতে তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্থর করা একটি অবৈধ পদক্ষেপ। জেরুজালেম স্বাধীন ফিলিস্তিনের রাজধানী, যা ইসরাইল অন্যায়ভাবে জবরদখল করে রেখেছে। এ অবস্থায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্থরের মাধ্যমে ফিলিস্তিন সংকটকে আরো উস্কে দিয়েছে। ফিলিস্তিনের নিপীড়িত মুসলমানদের রক্তের ওপর দাঁড়িয়ে বায়তুল মুকাদ্দাসের পবিত্র ভূমিতে মার্কিন দূতাবাস উদ্বোধন অনুষ্ঠান মেনে নেয়া যায় না।

বাবুনগরী বলেন, মুসলমানদের প্রথম কিবলা পবিত্র বায়তুল মুকাদ্দাসের পবিত্র ভূমিতে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদীদের স্থান হতে পারে না। সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ইসরাইল দীর্ঘ ৭০ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রের মদদে ফিলিস্তিনিদের ওপর অমানবিক নির্যাতন ও গণহত্যা চালাচ্ছে। ট্রাম্প প্রশাসন তা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। আরব শাসকদের লজ্জাজনক নির্লিপ্ততাই ইসরাইলকে এর এই গণহত্যা চালানোর সুযোগ দিচ্ছে।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, মার্কিন দূতাবাস স্থানান্থরের পদক্ষেপ নিছক সিদ্ধান্ত নয় বরং এটি মার্কিন সাম্রাজ্যবাদী গোষ্ঠী কর্তৃক ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড নতুন করে গ্রাস করার চক্রান্ত। ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্ত জাতিসংঘের প্যালেস্টাইন বিষয়ক একাধিক প্রস্তাবের চরম লঙ্ঘন। তিনি নির্যাতিত ফিলিস্তিনিদের পক্ষে সংহতি প্রকাশ করে ইসরাইল ও মার্কিনীদের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন গড়ে তুলতে মুসলিম উম্মাহর প্রতি আহ্বান জানান এবং ইসরাইলি পণ্য বর্জনের ডাক দেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

x