পানছড়িতে প্রতিপক্ষের গুলিতে ইউপিডিএফ নেতা খুন, আহত ১

গুইমারায় ধানক্ষেতে মিলল নিখোঁজ কৃষকের লাশ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

সোমবার , ২৩ এপ্রিল, ২০১৮ at ৫:৩২ পূর্বাহ্ণ
41

খাগড়াছড়ির পানছড়িতে প্রতিপক্ষের গুলিতে প্রসীত খীসার নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) এক নেতা খুন হয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে। গতকাল সকালে পানছড়ির মরাটিলা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম সুনীল বিকাশ ত্রিপুরা ওরফে কাতাং (৩৮)। এসময় অন্তত ত্রিপুরা (২৫) নামে আরেকজন আহত হয়েছেন। ইউপিডিএফ নেতা মাইকেল চাকমা এই হত্যাকাণ্ডের জন্য জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) কে দায়ী করেছেন। এ বিষয়ে ইউনাইটেড পিপল্‌স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিটের প্রধান সচিব চাকমা এক সংবাদ বিবৃতিতে জানান, ‘রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জেএসএস সংস্কারপন্থী সন্ত্রাসীদের একটি দল পানছড়ির উল্টাছড়ি ইউনিয়নের মরাটিলায় একটি দোকানে সশস্ত্র হামলা চালায়। এসময় ইউপিডিএফ’র সংগঠক সুনীল বিকাশ ত্রিপুরা দোকান থেকে বের হওয়ার সাথে সাথেই সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে। এতে তিনি মাথায় গুলিবিদ্ধ হন এবং ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এসময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে দোকানে থাকা অনন্ত ত্রিপুরা (২৫) নামে ইসকন মন্দিরের এক সাধকও আহত হয়েছেন। বিবৃতিতে তিনি এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানান।

পানছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান খান বলেন, সকাল ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত গোলাগুলির খবর শুনেছি। এতে অন্তত ত্রিপুরা নামে একজন আহত হয়েছেন। তবে মৃত্যুর কোনো খবর শুনিনি।

এদিকে গুইমারায় ধানক্ষেতে থেকে নিখোঁজ এক কৃষকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত আনোয়ার হোসেন (৪৫) একই এলাকার মৃত এছাক মিয়া ছেলে। স্বজনরা জানান, আনোয়ার হোসেন গুইমারা ডাক্তার টিলায় আমান উল্লাহর বাড়িতে কৃষি কাজ করতেন। সম্পর্কে আমান উল্লাহ ও মৃত আনোয়ার হোসেন আপন চাচাত ভাই। বৃহস্পতিবার থেকে আনোয়ার নিখোঁজ ছিলেন। গতকাল সকালে আমান উল্লাহ’র ধানক্ষেতেই তার লাশ পাওয়া যায়।

গুইমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গিয়াস উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৮টায় আনোয়ার হোসেনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য খাগড়াছড়ির সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

x