‘বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩২ দশমিক ৯৭ বিলিয়ন ডলার’

সোমবার , ১৬ এপ্রিল, ২০১৮ at ১২:০৪ অপরাহ্ণ
35

বাংলাদেশ ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ দাড়িয়েছে ৩২ দশমিক ৯৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। যা দেশে আগামী নয় মাসের আমদানি কার্যক্রমের জন্য এই রিজার্ভ পর্যাপ্ত। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ফরেন এক্সচেঞ্জ বিভাগের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী এই রিজার্ভের কথা জানানো হয়। চলতি বছর ২৯ মার্চ এই রিজার্ভ ছিল ৩২ দশমিক ৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। গত বৃহস্পতিবার ‘বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩২ দশমিক ৯৭ বিলিয়ন ডলার’ বাংলাদেশ ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ দাড়িয়েছে ৩২ দশমিক ৯৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। যা দেশে আগামী নয় মাসের আমদানি কার্যক্রমের জন্য এই রিজার্ভ পর্যাপ্ত। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ফরেন এক্সচেঞ্জ বিভাগের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী এই রিজার্ভের কথা জানানো হয়। চলতি বছর ২৯ মার্চ এই রিজার্ভ ছিল ৩২ দশমিক ৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত রিজার্ভ আরও দশমিক ৫৭ বিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি পায়, যা গতবছর ১১ এপ্রিলের রিজার্ভের চেয়ে আরও দশমিক ৬৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বেশি। সাম্প্রতিক সময়ে তৈরি পোশাক রপ্তানি এবং প্রবাসী শ্রমিকদের রেমিটেন্স এই রিজার্ভ গড়তে সহায়তা করেছে। খবর বাসসের।

চলতি অর্থবছরের (২০১৭১৮) প্রথম নয় মাসে রেমিটেন্স এসেছে ১০ হাজার ৭শ’ ৬১ দশমিক ২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১৭ দশমিক ০৪ শতাংশ বেশি। কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানায়, গত ২০১৬২০১৭ অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত দেশে রেমিটেন্স এসেছিল ৯ হাজার ১ শ’ ৯৪ দশমিক ৫৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

পর্যন্ত রিজার্ভ আরও দশমিক ৫৭ বিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি পায়, যা গতবছর ১১ এপ্রিলের রিজার্ভের চেয়ে আরও দশমিক ৬৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বেশি। সাম্প্রতিক সময়ে তৈরি পোশাক রপ্তানি এবং প্রবাসী শ্রমিকদের রেমিটেন্স এই রিজার্ভ গড়তে সহায়তা করেছে। খবর বাসসের।

চলতি অর্থবছরের (২০১৭১৮) প্রথম নয় মাসে রেমিটেন্স এসেছে ১০ হাজার ৭শ’ ৬১ দশমিক ২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১৭ দশমিক ০৪ শতাংশ বেশি। কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানায়, গত ২০১৬২০১৭ অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত দেশে রেমিটেন্স এসেছিল ৯ হাজার ১ শ’ ৯৪ দশমিক ৫৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

x