মালয়েশিয়ায় বানরের বিদ্যালয়

সিমলা চক্রবর্তী

বুধবার , ৯ মে, ২০১৮ at ৭:০৭ পূর্বাহ্ণ
114

মালয়েশিয়ার একটি ছোট্ট গ্রামে বানরদের জন্য বিদ্যালয় চালাচ্ছেন গ্র্যান্ডফাদার ওয়ান নামের এক ব্যক্তি। ৪০ বছর ধরে চলমান বিদ্যালয়টিতে এখন বানরের সংখ্যা কয়েক হাজার। বানরগুলো ঘুরে বেড়াচ্ছে বিদ্যালয় চত্বরে। তবে হেঁটে নয়, গাছে গাছে।

দেশটিতে প্রচুর ছোট লেজওয়ালা বিশেষ প্রজাতির বানরকে ওয়ানের কাছে পাঠিয়ে দেয় বানর মালিকেরা। ওয়ান তাদের প্রশিক্ষণ দেন। সেখানকার কৃষকদের সাহায্য করতে ফসল ও ফল উৎপাদনে বানরদের পারদর্শী করে তুলছেন ওয়ান। ফসলের ফলনে বানররা সাহায্যও করছে। এতে চাষিদের কাজ আরো দ্রুত হচ্ছে, সময়ও লাগছে কম। শুধু চাষের কাজ নয়, নারকেল গাছ থেকে ডাব পেড়ে আনার কাজটাও করতে পারে বানররা।

তবে এই কাজটা খুব একটা সহজ ছিল না। বানরদের প্রশিক্ষণ দেয়ার বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলেছিল অ্যানিমেল রাইটস গ্রুপ। তবে সেখানে কোনো অত্যাচার চালানো হয় না বলে দাবি করেন ওয়ান। পরে আন্দোলনকারীরা তাঁর সেই দাবি মেনে নেন। এই বানরগুলো তাঁর সন্তানের মতো বলেও দাবি করেন ওয়ান। ৬৩ বছরের এই মানুষটি তাদেরকে দেখালেন কিভাবে বানরদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। বিদ্যালয়ে প্রচুর নারকেল গাছ রয়েছে, বানরগুলো সেই গাছ বেয়ে ওপরে ওঠে। নারকেল ফেললে প্রশংসাও পায়। ভালোবেসে তাদের পিঠ চাপড়ে দেন ওয়ান। এভাবেই ওয়ানের তত্ত্বাবধানে প্রশিক্ষণরত বানররা বেড়ে উঠছে।

x