আজাদী ডেস্ক

নিম্নচাপের প্রভাবে দুই দিনের টানা বর্ষণে পাহাড়ে বড় বিপর্যয় নেমে এসেছে। পাহাড়ধসে সেনাবাহিনীর চার সদস্যসহ ১২৯ জন নিহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। সোমবার রাত ও গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাঙামাটি, কাপ্তাই, বান্দরবান, রাঙ্গুনিয়া ও চন্দনাইশে এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি হতাহতের ঘটনা ঘটেছে পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে। সেখানে চার সেনা সদস্যসহ ৮০ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া কাপ্তাইয়ে ১৮ জন, বান্দরবানে ৬ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ২১ জন ও চন্দনাইশে ৪ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া চট্টগ্রাম শহর, রাউজান ও বাঁশখালীর বাহারছড়ায় বজ্রপাতে, দেয়াল ধসে এবং গাছচাপায় আরও চারজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। পাহাড় ধসে প্রণহানির ঘটনায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। পৃথক পৃথক বার্তায় তারা এ শোক জানান।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে গত রোববার থেকে দেশের দক্ষিণ পূর্বের জেলাগুলোতে চলছে ভারি বৃষ্টিপাত। পাহাড়ি ঢলে সোমবার রাতে পরিস্থিতি নাজুক হয়ে পড়লে চট্টগ্রামের সঙ্গে রাঙামাটি ও বান্দরবানসহ কক্সবাজারের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এরই মধ্যে বৃষ্টির পানিতে মাটি সরে গিয়ে তিন জেলার বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ে ধস নামে। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পাশাপাশি সেনাবাহিনী, পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দারা বৃষ্টির মধ্যেই উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে গেলেও অনেকে নিখোঁজ থাকায় নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে উদ্ধারকর্মীরা জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY