আজাদী প্রতিবেদন ।।

চট্টগ্রামে শিক্ষকতায় কর্মরত এক বিদেশির ব্যাগ ছিনতাইয়ের এক দিনের মাথায় উদ্ধার হয়েছে ব্যাগটি। সাথে এক ছিনতাইকারী ধরা পড়েচে। তার নাম নাগর পণ্ডিত (২৬)। সে ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার ওসমানগঞ্জ গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে। চান্দগাঁও থানার বাহির সিগন্যাল এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার রাতে তাকে গ্রেফতার করে ছিনতাই হওয়া মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান নগর গোয়েন্দা পুলিশের (উত্তরদক্ষিণ) হাসান মো. শওকত আলী। গতকাল শুক্রবার বিকালে নগর পুলিশ (সিএমপি) সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে নগর গোয়েন্দা পুলিশের (উত্তরদক্ষিণ) হাসান মো. শওকত আলী ঘটনার দিন রাত সাড়ে নয়টার দিকে এশিয়ান উইমেন ইউনিভার্সিটির মার্কিন শিক্ষিক ডানা ম্যাকক্লেইন জিইসি মোড়ে একটি রেস্টুরেন্ট থেকে খাওয়া দাওয়া করে আল মদিনা ড্রাই ক্লিনার্স নামে একটি দোকানের সামনে বাসায় ফেরার গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন। এসময় সিএনজি অটোরিকশা করে এসে তার হাতে থাকা ব্যাগটি টান দিয়ে নিয়ে যায় দুই ছিনতাইকারী। ব্যাগে ল্যাপটপ, আইপ্যাড, ব্যাংকের দুটি ক্রেডিট কার্ড, নগদ ৭ হাজার টাকাসহ মূল্যবান কাগজপত্র ছিল। বৃহস্পতিবার রাতে ছিনতাই করা মালামালগুলো নিয়ে গ্রেফতারকৃত নাগর বিক্রি করতে মার্কেটে আসছিলেন। খবর পেয়ে চান্দগাঁও থানার বাহির সিগন্যাল এলাকা থেকে নাগরকে ‘অনিবন্ধিত’ অটোরিকশাসহ গ্রেফতার করা হয়। ছিনতাই হওয়া স্পটের আশেপাশের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে ছিনতাইকারীদের শনাক্ত করা হয়। নাগর আগেও একবার ছিনতাইয়ের মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছিল বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা শওকত আলী। তিনি বলেন, “তার কাছ থেকে ল্যাপটপ, আইপ্যাড, মোবাইলসহ ছিনতাই হওয়া মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া একটি পরিচয় পত্রও উদ্ধার করা হয়েছে, যার একপাশে ‘মোহনা সংবাদ’ লেখা থাকলেও বিপরীতে ‘মোহনা টিভি’ লেখা আছে। ছিনতাইয়ে নাগরের সঙ্গে আরও একজন অংশ নিয়েছিল। তাকে ধরতে আমরা অভিযান করছি।” তিনি আরও বলেন, পলাতক ব্যক্তিটি ওইদিন অটোরিকশাটি চালিয়েছিল এবং নাগর পেছনে যাত্রী বেশে ছিল। সেই ডানার কাছ থেকে ব্যাগটি ছিনিয়ে নেয়।

LEAVE A REPLY