সব কিছু ঠিক থাকলে আগামীকাল বুধবার বেলা ১১টায় চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার সিংহের খাঁচায় ‘বিয়ে হবে’ বাদশা ও নোভার। বিয়ের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন। বরযাত্রী থাকবেন তিন শতাধিক। এর মধ্যে আমন্ত্রিত সাংবাদিকই থাকবেন আড়াইশ। এ ছাড়া চিড়িয়াখানার পৃষ্ঠপোষক, পরিচালনা কমিটির সদস্য, কর্মকর্তাকর্মচারীরাও অংশ নেবেন এ অনুষ্ঠানে। গতকাল এ তথ্য জানান চিড়িয়াখানার চিকিৎসক সাহাদাত হোসেন শুভ। খবর বাংলানিউজের।

৫ সেপ্টেম্বর বর হিসেবে রংপুর থেকে চট্টগ্রাম আনা হয়েছিল ‘বাদশা’কে। ডেপুটি কিউরেটর মনজুর মোরশেদের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি টিম বাদশাকে লোহার খাঁচায় পুরে ট্রাকে চড়িয়ে নিয়ে এসেছিলেন। পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর জন্য এবং দুটি সিংহ যাতে মারামারি না করে সে জন্য এতদিন পৃথক খাঁচায় তাদের পাশাপাশি রাখা হয়। ওই ভ্রমণের ক্লান্তি এখনো পুরোপুরি কাটিয়ে উঠতে পারেনি বাদশা। এক প্রশ্নের উত্তরে ডা. শুভ বলেন,বাদশাকে প্রতিদিন পাঁচকেজি মুরগির মাংস দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু সে এখনো সর্বোচ্চ চার কেজি পর্যন্ত খেতে পারছে। শক্ত হওয়ায় এখনো গরুর মাংস দেওয়া হয়নি তাকে। তবে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার নৈসর্গিক পরিবেশের সঙ্গে সে দারুণ মানিয়ে নিয়েছে।

২০০৫ সালের ১৬ জুন চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় জন্ম নিয়েছিল সিংহ শাবক ‘বর্ষা’ ও ‘নোভা’। এদের জন্মের কিছুদিন পর তাদের মা ‘লক্ষ্মী’ এবং ২০০৮ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি বাবা ‘রাজ’ মারা যায়। এরপর আর কোনো নতুন সিংহ চিড়িয়াখানায় আনা হয়নি।

LEAVE A REPLY