সুপ্রতিম বড়ুয়া
একটি ভালো বই একজন ভাল মানুষের কাজ করে।মানুষ মানুষের ক্ষতি করতে পারে, তার জীবনকে নরক বানাতে পারে কিন্তু একটি বই কারও কোন ক্ষতি করেনা বরং ভাল করে তোলে।বই পড়লে জ্ঞান বাড়ে সেই সাথে তার চিন্তা ধারণাও পরিবর্তন করে। যে বই পড়ে তার শত্রুও থাকেনা কেননা সে সবসময়ই পড়ায় মশগুল হয়েই থাকে। কথায় বলে বই হচ্ছে নিরন্তর বন্ধু।
আপনার শিশু জাতির ভবিষ্যৎ। শিশুদের বই পড়ে শোনানোর উপকার এত বেশি যে তা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে, যেসব শিশুরা পড়তে ভালবাসে তারা স্কুলে সব বিষয়ে ভাল করে।শিশুদের মাঝে বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে আপনি শৈশব থেকেই তাকে বই পড়ে শোনাতে পারেন। তাকে বই পড়ে শোনানোর ফলে পড়ার প্রতি ছোটবেলা থেকেই তার মধ্যে বই পড়ার আগ্রহ সৃষ্টি হবে এবং বই পড়াকে সে একটি আনন্দদায়ক এবং গঠনমূলক কার্যকলাপ হিসেবে গ্রহণ করবে।আমরা দেখি কোন শিশুকে যত বই পড়ে শুনানো হয় তত তার শব্দ ভাণ্ডারের পরিধিও বেড়ে যায়।
শিশুদের বাড়ন্ত মস্তিষ্কের সাথে ভাষার স্নায়ুবিক সংযোগ গড়ে তুলতে এবং সেই সাথে তাদের জ্ঞানের পরিধি বাড়ানোর উদ্দেশ্যে একটি শক্ত ভিত্তি গড়ে তোলার জন্য বই পড়ে শোনানো একটি অন্যতম কার্যকর পদক্ষেপ হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে।শিশুতোষ বই সমূহ শিশুদের পড়ে শোনালে তাদের ভাষাগত দক্ষতা বৃদ্ধি পায় একই সাথে এটা তাদের কল্পনা শক্তিকে উৎসাহিত করে।
আপনি যদি খ্যাতিমান সাহিত্যিক, লেখক, কলামিস্টদের বাড়িতে যান দেখবেন তাঁদের বাসায় বই পুস্তকে ভরপুর।তাদের ব্যক্তিগত পাঠাগার আছে। খ্যাতিমান লেখকদের হাতে সবসময়ই বই থাকে। একজনের জ্ঞানী ব্যক্তির হাতে বই তার সঙ্গী হিসেবে কাজ করে। আজেবাজে চিন্তা এবং দুঃচিন্তা মুক্ত থাকতে হলে ভালো ভালো বই পড়া একান্ত দরকারী।কথায় আছে একটি বই একশটি বন্ধুর সমান।
ভাল বই ঘুমন্ত বিবেককে জাগিয়ে তোলে। অরুচিকর বই পাঠককে পৌঁছে দিতে পারে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। ভেঙে দিতে পারে পাঠকের মেরুদণ্ড। ভাল বই যেমন পাঠ করা দরকার তদ্রুপ মন্দ বই বর্জনও দরকার। একটি আদর্শ ও ভাল লেখকের মানসম্মত বই বদলে দিতে পারে মানুষের জীবনকে। কেননা ভালো বই যতই পড়া যাবে বিচিত্র জ্ঞানের ভাণ্ডার ততই বৃদ্ধি পাবে। বিখ্যাত ফার্সি কবি এ প্রসঙ্গে বলেন, সমস্ত জীবন জ্ঞানের ওপর লেখাপড়া করে বুঝেছি, জ্ঞানের বাতাস গায়ে লেগেছে মাত্র।প্রকৃত জ্ঞান অর্জন করতে পারিনি।এ ধরনের কথা জ্ঞানীরাই বলে। জ্ঞানরাজ্যের তৃপ্তি মেটানোর জন্য বইয়ের বিকল্প নেই।
আমাদের ভুললে চলবেনা যে লক্ষ লক্ষ মানুষ প্রতিনিয়ত অবিচার, দরিদ্র আর অজ্ঞতায় ভুগছে। আমাদের ভুললে চলবে না যে লক্ষ লক্ষ শিশু বিদ্যালয়ের বাইরে রয়েছে। আমাদের ভুললে চলবে না যে আমাদের ভাই বোনেরা উজ্জ্বল এক ভবিষ্যতের জন্য অপেক্ষা করছে।আর তাই আসুন বই আর কলম তুলে নিয়ে বিশ্ব নিরক্ষরতা, দরিদ্রতা আর সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াই এবং সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার দৃঢ় প্রত্যয় গড়ে তুলি। তাই বলছি একজন শিক্ষক, একটি বই আর একটি কলম বিশ্বকে বদলে দিতে পারে।
লেখক : অধ্যাপক, রামু কলেজ

LEAVE A REPLY