নিরাপত্তার অজুহাতে আসন্ন বাংলাদেশ সফরে না আসলেও ওয়ানডে অধিনায়ক ইয়োইন মরগানকে ‘কালোতালিকা’ ভুক্ত করা হবে না বলে জানিয়েছেন ইংল্যান্ড ক্রিকেট প্রধান এন্ড্রু স্ট্রস। চলতি মৌসুমে নিজ মাঠে শ্রীলংকা ও পাকিস্তানের বিপক্ষে জয় পাওয়া ওয়ানডে সিরিজে ইংল্যান্ড দলের নেতৃত্ব দেন মরগান। তবে তিনি এবং ওপেনিং ব্যাটসম্যান এ্যালেক্স হেলস আগামী মাসে শুরু হওয়া সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসছেন না। কিন্তু সাবেক অধিনায়ক স্ট্রস বলেছেন, সফরে না যাওয়ায় এ জুটির বিপক্ষে কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে না। তবে বাংলাদেশের পর আসন্ন ভারত সফরে ওয়ানডে সিরিজে দলের নেতৃত্ব দেবেন মরগান। বিবিসি রেডিও ৫ কে গতকাল স্ট্রস বলেন, আমরা প্রথম থেকেই বলে আসছি কাউকে জোর করা হবে না। ইংল্যান্ড এন্ড ওয়ালস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) ক্রিকেট ডিরেক্টর আরো বলেন, বিষয়টি এমন নয় যে, না যাওয়া খেলোয়াড়দেরকে কালোতালিকা ভুক্ত করা হবে এবং ভবিষ্যতে তাদেরকে আর দলে নেয়া হবে না। ‘দু’জনেই বিশেষ করে মরগান গত এক বছর যাবত ইংল্যান্ডের হয়ে দারুন পারফরমেন্স করে আসছেন। কেউ কেউ হয়তোবা দলে এসে অবিশ্বাস্য ভাল করতে পারে। তবে মরগান পুনরায় অধিনায়ক হিসেবেই এবং হেলসও দলে ফিরবেন। দুই টেস্ট ও তিন ওয়ানডে খেলার জন্য আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে পৌঁছাবে ইংল্যান্ড দল। তবে গত জুলাইয়ে গুলশানে সন্ত্রাসী হামলার পর এ সফর নিয়ে কিছুটা সংশয় সৃষ্টি হয়েছিল। তবে ইসিবি প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা রেগ ডিকাসন বাংলাদেশ সফরে এসে এখানকার নিরাপত্তার সার্বিক বিষয় দেখে সন্তোষ প্রকাশ করলে সফর চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয় ইংল্যান্ড কর্তৃপক্ষ। তবে ডিকাসনের নিশ্চয়তার সিদ্ধান্তের প্রতি মরগান ও হেলস সম্মান না দেখানোয় খুশি নন স্ট্রস। তবে উভয়ের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান রয়েছে স্ট্রসের। স্ট্রস বলেন, ‘এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য তারা উভয়েই যথেষ্ট পরিপক্ক। সবকিছু বিবেচনা করেই একটা সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন। তাদেরকে আমরা জোর করতে পারিনা।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY