পবিত্র জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১ সেপ্টেম্বর পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে। তার আগে ২৪ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে চলতি বছরের পবিত্র হজ ফ্লাইট। সরকারি ও বেসরকারি হজযাত্রীদের জন্য বাংলাদেশ বিমান ও সৌদি এয়ারলাইন্স এবার হজ ফ্লাইট পরিচালনা করবে।

এদিকে পবিত্র হজ পালনের লক্ষ্যে চলতি বছর নিবন্ধিত হজ গমনেচ্ছুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকাদান কার্যক্রম ১২ জুলাই শুরু হবে। রাজধানীসহ সারাদেশের সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ে চিকিৎসকরা প্রত্যেক হজযাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে পারবেন। এ সময় প্রত্যেক হজযাত্রীকে দুই ধরনের (ম্যানিনজাইটিস ও ইনফ্লুয়েঞ্জা) টিকা প্রদানের পাশাপাশি স্বাস্থ্য সনদ (হেলথ সার্টিফিকেট) দেওয়া হবে। হজযাত্রীকে টিকা নিতে যাওয়ার সময় প্রাকনিবন্ধন বা নিবন্ধনের ফটোকপি সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে। টিকা গ্রহণের পর হেলথ কার্ড সংরক্ষণ করতে হবে। হজযাত্রীদের সুবিধার্থে ১৬ জুলাই আশকোনা হজক্যাম্পে স্বাস্থ্য পরীক্ষা কেন্দ্র খোলা হবে। এ ছাড়া ঢাকা জেলা ও মহানগরীর হজযাত্রীরা বিভিন্ন হাসপাতাল, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও মিটফোর্ট হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, কুর্মিটোলা ৫০০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল, মুগদা সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল, ফুলবাড়িয়া ও বাংলাদেশ সচিবালয় ক্লিনিকে টিকা প্রদান ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে পারবেন।

অন্যান্য জেলার হজযাত্রীরা বিভাগীয় শহরে সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও জেলা শহরে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে টিকা প্রদান ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে পারবেন। স্বাস্থ্য সনদটি বিমানবন্দরে প্রদর্শনের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে। হজ অফিস ও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, ২০১৭ সালে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় মোট এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন বাংলাদেশি হজ পালনের জন্য সৌদি আরব যাবেন।

বেসরকারি হজ ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ৬৩৫টি হজ এজেন্সিকে অনুমোদন দিয়েছে সরকার। ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের হজ শাখার একজন কর্মকর্তা জানান, আগামী ২৪ জুলাই থেকে হজের ফ্লাইট শুরু হবে। ৪১৯ জন হজযাত্রী নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের (বিজি ১০১১) প্রথম হজ ফ্লাইটটি ২৪ জুলাই সকাল ৮ টায় ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করবে। সৌদি এয়ারলাইন্সও একই সময় থেকে হজ ফ্লাইট শুরু করবে।

LEAVE A REPLY