কক্সবাজার প্রতিনিধি ।।

কক্সবাজার শহরতলী ও রামুতে পুলিশ ও র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ৪৬ হাজার ৬শ পিস ইয়াবাসহ ছয় পাচারকারী ধরা পড়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে শহরতলীর চান্দেরপাড়া এলাকায় কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে ৩০ হাজার পিস ইয়াবাসহ ধরা পড়ে চার পাচারকারী। অন্যদিকে রামুর রশিদনগরে শুক্রবার ভোররাত আড়াইটার সময় র‌্যাবের অভিযানে ১৬ হাজার ৬০৮ পিস ইয়াবাসহ ধরা পড়ে দুইজন। এ ঘটনায় কক্সবাজার ও রামু থানায় পৃথক মামলা রুজুর পর আটককৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়। শহরতলীর চান্দেরপাড়া থেকে আটককৃতরা হলো টেকনাফ পল্ল্যান পাড়ার সোলতান আহমদের ছেলে মো. আমান উল্লাহ (৩৫) ও আলী উল্লাহ (২৫), দক্ষিণ লেঙ্গুরবিলের ফজল করিমের ছেলে সরওয়ার জাহান জুয়েল (২০) ও মুছনি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আবুল কাশেমের ছেলে মো. ইউনুছ (২২)। তাদের কাছে ৩০ হাজার পিস ইয়াবা ছাড়াও নগদ ৩৫ হাজার টাকা ও ৪টি মোবাইল ফোন সেট পাওয়া যায়। এ ঘটনায় আটক দুটি সিএনজি ট্যাক্সিও জব্দ করা হয় বলে জানান কক্সবাজার সদর থানার ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া। অন্যদিকে কক্সবাজারস্থ র‌্যাব ক্যাম্পের একটি দল শুক্রবার ভোররাত আড়াইটার সময় রামু থানার পানির ছড়াস্থ এরশাদ ফিলিং স্টেশনের সামনে মাদক বহনকারী একটি পিকআপে তল্লাশি চালিয়ে ১৬ হাজার ৬০৮ পিস ইয়াবা টেবলেটসহ ২ জন পাচারকারীকে আটক করে। আটককৃতরা হলেনব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার মেরেশানি গ্রামের খোরশেদ মিয়ার ছেলে মো. বিল্লাল মিয়া (২৫) ও কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার নওবাইত রাজকুন্তি এলাকার মো. জাবের মিয়ার ছেলে সুজন মিয়া (২২)

র‌্যাব কক্সবাজার ক্যাম্পের ইনচার্জ মেজর মো. রুহুল আমিন জানানআটককৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়েরের পর রামু থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY