কমনওয়েলথভুক্ত ৫৮টি দেশের প্রতিযোগিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত ‘কমনওয়েলথ সায়েন্স ক্লাস কম্পিটিশন’এ ১ম স্থান লাভ করেছেন জামালখান কুসুম কুমারী সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক (ইংরেজি) লুৎফুন্নিসা খানম। দি রয়েল সোসাইটি ইংল্যান্ড তাঁকে এ পুরস্কারে ভূষিত করে। এক বছর যাবত বিভিন্ন ধাপ পার হয়ে তিনি এ সম্মাননা অর্জন করেন। কেমন ছিল তাঁর প্রস্তুতি, কিভাবে তিনি পাড়ি দিলেন এ দীর্ঘ পথপরিক্রমা, শোনা যাক তাঁর মুখেই।

২০১৬ সালের ২৬ মে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চম্পা মজুমদারের সম্মতিতে যাত্রা শুরু করি, আমার দলে ইংল্যান্ড ও নাইজেরিয়ার দুই জন শিক্ষক ছিলেন। জামালখান কুসুম কুমারী সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় বিশ্বের তিনটি স্কুলের মধ্যে একটি এবং আমি (লুৎফুন্নিছা খানম) বিশ্বের তিনজন শিক্ষকের মধ্যে একজন নির্বাচিত হই, যিনি সিঙ্গাপুর প্রাইজ ট্রিপ পেয়েছেন। আমাদের সর্বশেষ ধাপের কাজ ছিল তিন দেশের Infectious Diseaseনিয়ে সংক্ষিপ্ত গবেষণা করা।

Dr. Rosalind Mist, Head of Policy, Education, The Royal Society, England আমাকে নিজে এসে অভ্যর্থনা জানালেন। The Royal Society, Englandআমার ক্ষুদে শিক্ষার্থীর এবং স্কুলের ভূয়সী প্রশংসা করলেন, বাংলাদেশ ও নিজ বিদ্যালয়ের জন্য গর্বে মন ভরে গেল। সিঙ্গাপুরে আমার Team member ইংল্যান্ডেরJonathan নাইজেরিয়ার Olusegun এর দেখা হল যাঁদের সাথে দীর্ঘ এক বছর onlineএ কাজ করেছি। Commonwealth Science Conference এ অংশগ্রহণ ছাড়াও The Royal Societyআমাদেরকে সিঙ্গাপুরের সব দর্শনীয় স্থান ঘুরে দেখালেন। আমাদের স্কুলে The Royal Society Gilocal Scientistআসবেন, আমাদের ক্ষুদে শিক্ষার্থীর সাথে দেখা করবেন, এছাড়াও Book Prizeপাঠানো হচ্ছে স্কুলে ইংল্যান্ড থেকে।

জামালখান কুসুম কুমারী সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এই সাফল্যের নেপথ্যে রয়েছেন স্কুলের ৮ জন শিক্ষার্থী, শিক্ষকবৃন্দ, প্রধান শিক্ষক চম্পা মজুমদার ও আমার দীর্ঘ একবছরের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা, সিটি কর্পোরেশনের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তানাজিয়া শিরিন, জামালখান ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, সিটি মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মন্‌জুরুল ইসলাম, মাননীয় মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

LEAVE A REPLY