ফারুক হাসান

গণমাধ্যম হিসেবে বেতারের ভূমিকা অনস্বীকার্য। বেতারের যখনি যে কোন মানুষের হৃদয়কে আলোড়িত করে, মনের মনিকোঠাঁয় স্থান করে নেয় যেকোন গান আর অনুষ্ঠানমালার মধ্য দিয়ে তখনি মানুষের মুখে মুখে ফিরে সে অনুষ্ঠানের কথা তেমনি এক প্রাণবন্ত অনুষ্ঠান হয়ে গেল সম্প্রতি নগরীর ডিসি হিল প্রাঙ্গণে উৎমুখ অনুষ্ঠানমালার মধ্য দিয়ে। বাংলাদশ বর্তমানে অথনৈতিকভাবে সমৃদ্ধশালী একটি দেশ। এখন মানুষের মাথাপিছু আগের তুলণায় আয় অনেক বেড়েছে। স্বাধীনতার অনেক পরে এসে আমরা স্বাধীনতার সুফল পেতে শুরু করেছি। নাগরিকদের সেবায় আমার ওপর যে দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে তা যথাযথভাবে পালন করতে চাই। জনগণের অন্ন, বস্ত্র,বাসস্থানের সুযোগ নিশ্চিতে আমাদের সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এখন অনেক উন্নত । আমরা এর স্বাদ পরিপূর্ণভাবে গ্রহণ করেছি। বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা বিনির্মাণে যেভাবে নিবেদিত ছিলেন। তৃণমূল পযায়ে তাঁর আদর্শ ও লক্ষ্য বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ গঠনের সঠিক সার্থকতা সৃষ্টি হবে।

বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রের বহিরাঙ্গণ অনুষ্ঠান আয়োজন উপলক্ষে বিকেলে অনুষ্ঠিত প্রধান অতিথির ভাষণে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র আলহাজ্ব আ... নাছির উদ্দিন এ মন্তব্য করেন। চট্টগ্রাম বেতারের আঞ্চলিক পরিচালক এস.এম. আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রবন্ধ পাঠ করেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. আনোয়ারা আলম, বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা, পিপিএম, জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরী।

পবিত্র কোরান তেলাওয়াতের মাধ্যমে সূচিত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আঞ্চলিক প্রকৌশলী আবু তাহের রায়হান। বেতারের ঘোষক ইকবাল হোসেন সিদ্দিকী ও নাসরিন ইসলামের প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় প্রবন্ধকার ড. আনোয়ারা আলম বলেন, বর্তমান সরকারের গৃহীত ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার পরিকল্পনা সফলতার সাথে এগিয়ে যাচ্ছে। এক্‌িট নারী বান্ধব এবং প্রতিবন্ধী বান্ধব সরকার হিসেবে জনগণের আশা আকাঙক্ষার সফল বাস্তবায়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত সফল বলা যায়। একটি বাড়ি একটি খামার কৃষি অর্থনৈতিক সমাজ ব্যবস্থার সফলতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কর্মযজ্ঞ আজ দেশে বিদেশে সমাদৃত হয়েছে।

অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা বলেন, বহির্বিশ্বে বাংলাদেশ একটি মডেল রাষ্ট্র হিসেবে পরিণত হয়েছে। স্বাধীনতার পরবর্তীকালে উন্নয়নের দিগন্ত সূচিত করেছে। জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরী বলেন, বেতারকে গ্রামমূখী করা হলে এর ব্যাপ্তি আরো ছড়িয়ে পড়বে। জনগণের বৃহত্তর স্বার্থে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।

বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রের বহিরাঙ্গন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আয়োজিত এ মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম বেতার অঞ্চলে খ্যাতিমান শিল্পী সাইফুদ্দিন মাহমুদ খান, কল্যাণী ঘোষ, সঞ্জিত আচার্য, গীতা আচার্য, প্রেম সুন্দর বৈষ্ণব, শাকিলা জাহান, শিরিন আকতার, আকলিমা আকতার, আলাউদ্দিন তাহের, শাহরিয়ার খালেদ, জামিল আহমেদ চৌধুরী, সুব্রত দাস অনুজ, মানস পাল চৌধুরী, শিমুল শীল সঙ্গীত পরিবেশন করেন এবং নৃত্য পরিবেশনায় ছিলেন, স্কুল অব ওরিয়েন্টেশন ডান্স ও শিশু একাডেমির ছাত্র ছাত্রীরা। এ ধরনের একটি প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানের জন্য বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রকে সাধুবাদ জানাই।

LEAVE A REPLY