গত ১ জানুয়ারি ২০১৬ হতে ১৫ জুলাই ২০১৭ পর্যন্ত জব্দ করা বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য ধ্বংস করেছে র‌্যাব৭। গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের উপস্থিতিতে বিভিন্ন সময়ে জব্দকৃত ৩৫,৭০,০০০ পিস ইয়াবা, ২০০ কেজি গাঁজা, ,১৮১ বোতল ফেন্সিডিল, ২০০ বোতল বিদেশি মদ ও বিয়ার ধবংস করা হয়। ধ্বংসকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ১৭৯ কোটি ২৭ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা। বর্তমানে দেশে যুব সমাজের অধঃপতনের অন্যতম কারণ সর্বনাশা মাদক ইয়াবা। র‌্যাব, চট্টগ্রাম এই সর্বনাশা মাদক ইয়াবার বিস্তার রোধ এবং দেশের যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য সামনে থেকে জোড়ালোভাবে মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

র‌্যাব, চট্টগ্রাম গত ১ জানুয়ারি ২০১৬ হতে ১৫ জুলাই ২০১৭ পর্যন্ত সর্বমোট ১,১৮,৫৩,৮৬৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩৩,৫১৯ বোতল ফেন্সিডিল, ২২৯০ বোতল বিদেশি মদ ও বিয়ার, ,৫৭,৩৫২ লিটার দেশীয় তৈরি মদ, ৪১০.৭০০ কেজি গাঁজা, ২ কেজি ৪০০ গ্রাম আফিম, ১ কেজি ২০০ গ্রাম হেরোইন, ৮৭,৮০,০০০ পিস ব্যানসন এন্ড হেজেস সিগারেট আটক এবং এ সংক্রান্তে মাদক ব্যবসা ও মাদক পাচারের সাথে জড়িত মোট ৩৪৫ জন অপরাধীকে গ্রেফতার করেছে।

মাদকদ্রব্য ধ্বংসকালে স্থানীয় এমপি, ডিজি, র‌্যাব ফোর্সেস ও চট্টগ্রাম অঞ্চলের বিভিন্ন মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, সাবেক মেয়র, সরকারী ও বেসরকারি উর্ধ্বতণ কর্মকর্তাগণ, স্থানীয় জন প্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও বিভিন্ন স্তরের সাধারণ মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, দেশের সকল আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কর্তৃক এ যাবৎকালের আটককৃত ইয়াবা চালানের মধ্যে প্রথম সর্ববৃহৎ চালান ২৮ লক্ষ গত ১৫ জানুয়ারি ২০১৬ চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র উপকুল হতে উদ্ধার করা হয়, ২য় সর্ববৃহৎ চালান ২০ লক্ষ গত ১৬ এপ্রিল ২০১৭ চট্টগ্রামের পতেঙ্গা গভীর সমুদ্র এলাকা হতে উদ্ধার করা হয় এবং ৩য় সর্ববৃহৎ চালান ১৫ লক্ষ গত ২৩ জুন ২০১৭ চট্টগ্রামের পতেঙ্গা বহিঃনোঙ্গর সমুদ্র এলাকা হতে উদ্ধার করা হয়। খবর প্রেস বিজ্ঞপ্তির।

LEAVE A REPLY