রাউজান প্রতিনিধি

নির্বাচনকে সামনে রেখে রাউজান উপজেলা যুবলীগের নতুন কমিটি গঠন করা হচ্ছে। বিগত ১৯ বছর পর আওয়ামীলীগের এই সহযোগী সংগঠনের কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেয়া হলো। একই সাথে নতুন কমিটি গঠন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে ১৫ বছর আগে করা উপজেলা ছাত্রলীগের উত্তর দক্ষিণ সাংগঠনিক কমিটিও। দীর্ঘ সময় পর আওয়ামী লীগের যুব ও ছাত্র সংগঠনের নতুন কমিটি গঠন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ায় এখানকার যুব ও ছাত্র সমাজের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য শুরু হয়েছে। কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদ পেতে এখন অনেকেই মরিয়া হয়ে উঠেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র সমূহ থেকে জানা যায়, বর্তমান যুবলীগের কমিটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে আছেন মুসলিম উদ্দিন জয়নাল ও বশির উদ্দিন খান। কমিটিতে থাকা সাধারণ সম্পাদক বশির খান একই সাথে দায়িত্ব পালন করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদকেরও। এই উপজেলায় দেড় যুগ আগে গঠিত হয়েছিল ছাত্রলীগের উত্তর ও দক্ষিণের দুটি সংগঠনিক কমিটি। এই দুটি কমিটির মধ্যে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক পদে আছেন কাউন্সিলর জমির উদ্দিন পারভেজ ও জসিম উদ্দিন(উত্তর)। অপরটিতে আছেন উরকিরচরের চেয়ারম্যান ছৈয়দ আব্দুল জব্বার সোহেল ও জাহাঙ্গীর আলম(দক্ষিণ)

সূত্র মতে আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগের এই দুটি সংগঠনকে গতিশীল ও শক্তিশালী করতে মনোযোগী হয়েছেন সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। তিনি এলাকার দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দকে দুটি সংগঠনের নতুন কমিটি গঠনের বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন।

খবর নিয়ে জানা যায়, কমিটি গঠনের সাথে সংশ্লিষ্ট নেতৃবৃন্দ ইতিমধ্যে দফায় দফায় বৈঠক করছেন। তারা উপজেলার কলেজ সমূহে ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠন করার কাজে হাত দিয়েছেন। এরপর করা হবে উপজেলা কমিটি। নতুন কমিটিতে অন্তর্ভূক্তির জন্য প্রার্থীদের অতীত বর্তমান কর্মকাণ্ড বিচার বিশ্লেষন করে প্রার্থীদের যোগ্যতা বাছাই করা হচ্ছে। উপজেলা ছাত্রলীগের উত্তর কমিটিতে দিপলু দে ও নজরুল ইসলাম শীর্ষ দুটি পদ পেতে যাচ্ছেন বলে গুঞ্জন চলছে। এর বাইরে লবিং করছেন কুতুব সিকদার, কাজী মাসুদ, মোহাম্মদ আসিফ। সংশ্লিষ্টদের সাথে আলাপ আলোচনায় জানা গেছে ছাত্রলীগের বর্তমান দুইটি সাংগঠনিক কমিটির (উত্তর দক্ষিণ) দুই সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজ ও ছৈয়দ আব্দুল জব্বার সোহেলকে উপজেলা যুবলীগের নতুন কমিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব দেখা যেতে পারে বলে অনেকেই বলছেন। এর বাইরে সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য লবিং করছেন আলহাজ্ব আহসান হাবিব চৌধুরী, ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ম্যালকম চক্রবর্তী, সরজু মোহাম্মদ নাছির, সওকত হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম সুমন, মহিউদ্দিন ইমন, চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রোকন উদ্দিন মোহাম্মদ নাছিরসহ আরো অনেকেই। যুবলীগের পৌরসভা কমিটিতে সভাপতি সাধারণ সম্পাদক পদ পেতে লবিং করছেন হাসান মোহাম্মদ রাসেল, সুমন দে, তপন দে, মোহাম্মদ জাবেদ রহীম, আবু ছালেক প্রমূখ। পদ পেতে আগ্রহীদের সকলেই বলেছেন তারা পদ পদবীর জন্য আগ্রহী হলেও এ ব্যাপারে এলাকার সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর যেকোনো নির্দেশনা মেনে সংগঠনের কাজ করবেন।

কমিটি গঠনের সাথে সংশিহ্মষ্ট দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে জানা যায়, দুটি সংগঠনের অনেকেই পদ পদবী পেতে আগ্রহ প্রকাশ করে লবিং করছেন। যোগ্য ও বিশ্বস্ত নেতাকর্মীদের তালিকা তৈরী করে সাংসদের হাতে দেয়া হবে। তার নির্দেশনা মোতাবেক সম্মেলনের মাধ্যমে দুটি সংগঠনের কমিটি গঠন করা হবে।

LEAVE A REPLY