রাশিয়া এবং যুক্তরাজ্যভিত্তিক একটি সংগঠন আবু বকর আলবাগদাদির ‘মৃত্যু হয়েছে’ বলে ধারণা করলেও এক কুর্দি কর্মকর্তার দাবি, জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের এ প্রধান এখনো জীবিত। গতকাল সোমবার ইরাকের কুর্দি অঞ্চলের সন্ত্রাসবাদবিরোধী শীর্ষ কর্মকর্তা লাহুর তালাবানি এ দাবি করেছেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স। লাহুর বলেন, তিনি ৯৯ শতাংশ নিশ্চিত যে বাগদাদি এখনো জীবিত এবং তিনি সিরিয়ার দক্ষিণে রাক্কা শহরে লুকিয়ে আছেন। ‘বাগদাদি অবশ্যই জীবিত। সে মারা যায়নি। সে যে জীবিত এই বিষয়ে আমাদের কাছে তথ্য আছে। আমরা ৯৯ শতাংশ নিশ্চিত। ভুলে গেলে চলবে না তার শেকড় ছিল ইরাকের আল কায়েদাতে। তখনও সে নিরাপত্তারক্ষীদের কাছ থেকে লুকিয়ে ছিল। সে জানে সে কি করছে,’ বলেন লাহুর। খবর বিডিনিউজের। তিন বছর পর চলতি মাসে আইএসের কাছ থেকে মসুল পুনরুদ্ধার করেছে ইরাকি বাহিনী, সিরিয়ার রাক্কায়ও জঙ্গিগোষ্ঠীটির ওপর চাপ বাড়ছে।

গত মাসে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় মে মাসের বিমান হামলায় বাগদাদি নিহত হয়েছেন বলে তাদের ধারণার কথা জানায়। যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বাহিনী এ ব্যাপারে কিছু না বললেও সপ্তাহখানেক আগে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংগঠন দ্য সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস আইএসপ্রধানের মৃত্যুর ‘নিশ্চিত তথ্য’ পাওয়ার কথা জানিয়েছিল। কুর্দি কর্মকর্তা লাহুর রয়টার্সকে বলেন, কম মনোবলের মধ্যেও আইএস এখন তাদের কৌশল বদলাচ্ছে। জঙ্গি গোষ্ঠীটিকে পুরোপুরি নিশ্চিহ্ন করতে তিন থেকে চার বছর সময় লাগতে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন তিনি।

বাগদাদির মৃত্যু হলে সাদ্দাম আমলে গোয়েন্দা কর্মকর্তার দায়িত্বে ছিলেন এমন দুই সহযোগীর একজন তার উত্তরসূরী হতে পারেন বলে ধারণা করছে পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলো। এদের মধ্যে আয়াদ আল ওবায়িদির আইএসের যুদ্ধমন্ত্রী হিসেবে কাজ করছেন। আর আয়াদ আল জুমাইলি আছেন আমনিয়া নিরাপত্তা সংস্থার প্রধান হিসেবে। এ দুজনই এখন জঙ্গিগোষ্ঠীটির কৌশল নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণভূমিকা রাখছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY