কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় সব কমিটিতে নারী প্রতিনিধিত্বের যে প্রতিবেদন দলগুলো নির্বাচন কমিশনে জমা দিয়েছে, তাতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির একই পরিসংখ্যান এসেছে। বাংলাদেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলই তাদের সব পর্যায়ের কমিটিতে ১৫ শতাংশ নারী সদস্য থাকার কথা জানিয়েছে বলে ইসির নির্বাচন সমন্বয় ও সহায়তা শাখার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে এখন নারী প্রতিনিধিত্ব ১৯ শতাংশ বলে দলটি জানিয়েছে। ২০২০ সালের মধ্যে নিবন্ধিত ৪০টি রাজনৈতিক দল কেন্দ্রীয় ও তৃণমূলের কমিটিতে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ নির্ধারিত নারী প্রতিনিধিত্ব (৩৩ শতাংশ) পূরণ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। খবর বিডিনিউজের।

এ বিষয়ে অগ্রগতি প্রতিবেদন জমা দিতে ১৩ জুন দলগুলোকে চিঠি দেয় নির্বাচন কমিশন। এজন্য ১০ জুলাই পর্যন্ত সময় দেওয়া হলেও অর্ধেকেরও কম দলের সাড়া পাওয়ায় তাগিদপত্র দেওয়া হয়। পরে ৪ অগাস্ট পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়। তবে এখনও পাঁচটি দল প্রতিবেদন দেয়নি বলে ইসির সহকারী সচিব রৌশন আরা জানিয়েছেন। এই দলগুলো হলবিকল্পধারা বাংলাদেশ, গণফোরাম, বাংলাদেশ ত্বরিকত ফেডারেশন, ঐক্যবদ্ধ নাগরিক আন্দোলন ও বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি। যারা প্রতিবেদন দিয়েছে তাদের অধিকাংশই বর্তমান অবস্থান তুলে না ধরে ২০২০ সালের মধ্যে লক্ষ্যমাত্রা পূরণ সম্ভব হবে আশার কথা বলেছে বলে ইসি কর্মকর্তারা জানান। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক তান্ত্রিক দল (জাসদ) বলেছে, তাদের কেন্দ্রীয় কমিটিতে ১১ দশমিক ৯৯ এবং জেলা কমিটিতে ৮ থেকে ১০ শতাংশ নারী সদস্য আছেন।

LEAVE A REPLY