পটিয়া প্রতিনিধি

নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী (অব.) বলেছেন গ্রহণযোগ্য, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ নির্বাচন কমিশন। নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ ও আনসার বাহিনী সবসময় নিয়োজিত থাকবে। নির্বাচন কমিশনার নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য করে বলেন, নিরপেক্ষ ও অবাধ নির্বাচনের জন্য সকল ধরনের ব্যবস্থা করতে হবে। পক্ষপাতের কোন সুযোগ নেই। তিনি গতকাল শনিবার দুপুরে জুলধা ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাচন নিয়ে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

প্রার্থীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভোট কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ছাড়াও ম্যাজিষ্ট্রেট মোতায়েন থাকবে তাই সিসিটিভির প্রয়োজন হবে না। প্রার্থীদের উদ্দেশ্য করে নির্বাচন কমিশনার বলেন, আপনাদের সমর্থকদের কন্ট্রোল করবেন। যদি নির্বাচনের আগে আপনাদের কথা না শোনেন তাহলে নির্বাচনের পরে কিভাবে তাদের দমাবেন। প্রার্থীদের আচরণবিধি মেনে চলার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচনী যে ব্যয় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে এর চেয়ে বেশি টাকা খরচ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সমন্বয় সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী মো. ওসমান সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন এবং ম্যাজিষ্ট্রেট নিয়োগের দাবি জানান। আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ফারুক চৌধুরী সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস দেন। ইসলামিক ফ্রন্টের চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম রিজভী বৈরি আবহাওয়ার জন্য নির্বাচন পেছানোর দাবি জানান।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোখলেসুর রহমান, সিএমপি পুলিশের বন্দর উপপুলিশ কমিশনার হারুনউররশিদ, চট্টগ্রাম পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা, বিজিবি চট্টগ্রামের লেপ্টেনেন্ট কর্ণেল মঞ্জুরুল আলম, র‌্যাব চট্টগ্রামের মেজর আশেকুর রহমান। কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও জেলা সিনিয়র নির্বাচন অফিসার মুনির হোসাইন খানের স্বাগত বক্তব্যের পর ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার সৈয়দ আবু ছাঈদের সঞ্চালনায় এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী ফারুক চৌধুরী, এসএম ফোরকান, এ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম রিজভী, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী দিদারুল ইসলাম চৌধুরী, হাজী মো. ওসমান, মাওলানা মুহাম্মদ মুছা, নাছির উদ্দীন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী বানাজা বেগম, উম্মে মিরজান শামীমা ও মুন্নি বেগম। এছাড়াও অনুষ্ঠানে কর্ণফুলী উপজেলা ইউএনও আহ্‌সান উদ্দীন মুরাদ, নবাগত ইউএনও বিজেন ব্যানার্জী, কর্ণফুলী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম পিপিএম, পটিয়া থানার ওসি শেখ মুহাম্মদ নেয়ামত উল্লাহসহ গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কর্ণফুলী উপজেলা আ’লীগের সেক্রেটারী হায়দার আলী রনি, জুলধা ইউপি চেয়ারম্যান রফিক আহমদ, শিকলবাহা ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম।

LEAVE A REPLY