আজাদী প্রতিবেদন

চকবাজার থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজ আহমেদের বিরুদ্ধে আদালতে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেছেন রাশেদ মিয়া নামে এক কোচিং সেন্টারের মালিক। একই মামলায় আজিজের বন্ধু মনছুর আজাদকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে। গতকাল সোমবার রাশেদ মিয়া বাদী হয়ে চট্টগ্রামের পঞ্চম মহানগর হাকিম আদালতে মামলার আরজি দাখিল করেন। আদালত মামলা আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বলে বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট খায়রুল ইসলাম জানিয়েছেন।

আজিজ আহমেদ বর্তমানে নগর পুলিশের বিশেষ শাখায় পরিদর্শক পদে কর্মরত আছেন। রাশেদ মিয়াকে নগরীর জিইসি মোড়ের এমসিএইচ ও ইউনি এইড নামে দুটি কোচিং সেন্টারের মালিক হিসেবে মামলার আরজিতে উল্লেখ করা হয়েছে। আদালত থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, মামলার বাদী আদালতে এ সংক্রান্তে কিছু ভিডিও ফুটেজও দাখিল করেছেন। মামলার আরজিতে রাশেদ মিয়া অভিযোগ করেছেন, ২০১৬ সালের মাঝামাঝিতে ওসি আজিজ তার প্রতিষ্ঠানে গিয়ে তার কাছে ৭০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। রাশেদ চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর আজিজ ও তার বন্ধু আজাদ মিলে তার কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে যান।

এরপর ১৬ অক্টোবর আজিজ ও আজাদ মিলে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ১১টি খালি চেকে স্বাক্ষর করতে রাশেদকে বাধ্য করেন।

২০ অক্টোবর মিথ্যা তথ্য দিয়ে পাঁচলাইশ থানা পুলিশকে বাসায় পাঠিয়ে ওসি আজিজ রাশেদকে হয়রানি করেন। মামলার আরজিতে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩৮০, ৩৮৭, ৪৬৮ ও ৪৭১ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। এদিকে এ চাঁদাবাজির ঘটনায় গত ২৭ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে রাশেদ অভিযোগ করেছিলেন।

LEAVE A REPLY